Monday, 3 December 2012

মজার রেসিপিঃ কাচ্চি বিরিয়ানি

Mutton biriyani
অনেককেই দেখছি নানান রকমারি রেসিপি লিখছেন। UBC অর্থাৎ উদরাজী ব্রডকাস্টিং কর্পোরেশনের রেসিপি বিভাগ, শাপলা (ইদানিং তাকে দেখাই যাচ্ছে না), আমার প্রিয়তমা এবং একমাত্র প্রেমিকা ইজি রেসিপি এবং প্রিয় বহিন স্বয়ং বিষ্ণু ওরফে বিন্নি আপা এবং নাজমুল হুদা ভাই। তা এদের এই সব

মজার মজার রেসিপি দেখে আমা্রও একটু সাধ হল দেশের পাবলিক, জনগন এবং জাতির উদ্দেশ্যে নিজেকে বিলিয়ে দেয়ার। যেমন কথা তেমন কাজ, সাথে সাথে কলম কেঁচি হাতে বসে পড়লাম এমন একটা মজার রেসিপি লেখার জন্য। আমাকে দেখতে শান্ত সুবোধ বালকের মত মনে হলে কি হবে আমি কিন্তু আসলে অতিমাত্রায় অস্থির প্রকৃতির মানুষ। যখন যা ভাবি তা না করা পর্যন্ত স্থির হতে পারি না।

যাক, এমন কথা বললে সারা দিন ধরেই বলা যায় কিন্তু তাতে কি এমন আসে যায়? কাজে চলে আসি?
তাহলে আজ আমি একটা বিরিয়ানির রেসিপি দেই? ভয়ের কিছু নেই, নিতান্ত খারাপ কিছু হবে বলে আমি মনেই করি না। তা হলে শুরু করছি!

উপকরণঃ
১। কাচ্চি বিরিয়ানি- এক প্লেট।
২। শামি কাবাব- দুইটা কিংবা চিকেন কাটলেট হলেও চালিয়ে নেয়া যাবে।
৩। চিকেন ফ্রাই- দুই টুকরা, এর সাথে অল্প কিছু ফ্রেঞ্চ চিপস নিতে পারেন।
৪। টমাটো, শশা, কাঁচা মরিচ, পিঁয়াজ, লেটুস পাতা ও ধনে পাতার সালাদ- এক কোয়ার্টার প্লেট।
৫। মাটন রেজালা- এক পেয়ালা।
৬। এক গ্লাস বোরহানি, বোরহানি না পেলে কোক বা স্প্রাইট দিয়ে আজকের মত চালিয়ে দিন।
৭। রাইস পুডিং/আইসক্রিম/ফ্রুট কাস্টার্ড- এক বাটি।
৮। পানি- এক গ্লাস।
DSC00584
Borhani
DSC00796
কি ভাবে সদ্ব্যবহার করবেনঃ
(যদি আপনি হাত দিয়ে খেতে পারেন তাহলে ভাল করে হাত ধুয়ে নিন আর যদি ছুড়ি কাটা দিয়ে খাবার অভ্যাস থাকে তাহলে ডান হাতে কাটা নিয়ে শুরু করুন)
১। হাত মুখ ভাল করে ধুয়ে টেবিলে বসুন।
২। সালাদের প্লেট থেকে দুই এক টুকরা শশা কিংবা লেটুস নিয়ে চিবিয়ে খেতে থাকুন। এতে মুখে এনজাইম নিঃসৃত হবে এবং খাবার খুব সহজেই হজম হবে।
৩। একটু বোরহানি চুমুক দিন। রুচি বৃদ্ধি পাবে।
৪। প্লেট থেকে কাবাব কিংবা চিকেন ফ্রাই আপনার পছন্দ মত তুলে খেতে থাকুন।
৫। এবার একটু একটু করে বিরিয়ানি মুখে দিন। সাথে একটু সালাদ/বোরহানি নিতে পারেন।
৬। এই ভাবে কার কথায় কান না দিয়ে কিংবা অন্য কোন দিকে মনযোগ না দিয়ে আপনার সম্পূর্ণ ইচ্ছে মত খেয়ে শেষ করুন।
৭। গ্লাসের তলানি বোরহানি বা কোক এক চুমুকে শেষ করে নিন।
৮। এবার ডেজার্ট এর পেয়ালা থেকে আপনার রুচি মত যা সম্ভব খেয়ে নিন।
৯। কিছুক্ষণ পরে পানির গ্লাসে চুমুক দিয়ে পান করে নিন।

আর কিছু মনে হয় বাকি নেই তাই এবার পাশের দোকানে গিয়ে এক খিলি পান কিনে চিবুতে থাকুন। সমস্যা হলে আমাকে জানাবেন কিন্তু…………।
রেসিপিটা কেমন লাগল জানাবেন, না জানালে এই পোস্ট দেখা নিষেধ।

No comments:

Post a Comment

Thank you very much for your comments.